মোবাইল অ্যাপ পেতে আপনার অ্যান্ড্রয়েড ফোনের প্লে-স্টোর থেকে ডাউনলোড করুন | নিজের এলাকার খবর জানাতে হোয়াটসঅ্যাপ করুন 9232119011
logo
Breaking News

রামের অস্তিত্ব নিয়ে প্রশ্ন তোলা ব্যক্তিদের ভুলবেন না, বিরোধীদের তোপ মোদির

2020-11-04 12:01:02
ভারত সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ স্লাইডার সাম্প্রতিক পোস্ট
রামের অস্তিত্ব নিয়ে প্রশ্ন তোলা ব্যক্তিদের ভুলবেন না, বিরোধীদের তোপ মোদির

নিজস্ব প্রতিবেদন: প্রায় বছর খানেক বাদে প্রধানমন্ত্রীর মুখে শোনা গেল নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের কথা। রবিবার বিহারের এক নির্বাচনী সভায় নাগরিকত্ব আইন বা সিএএ নিয়ে বিরোধীদের তীব্র কটাক্ষ করেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, বিরোধীরা অকারণে নাগরিকত্ব আইন নিয়ে মানুষের মধ্যে মিথ্যা প্রচার করেছে। তাদের ভয় দেখিয়েছে। এমন কি কেউ আছেন যিনি বলতে পারবেন নাগরিকত্ব আইন পাস হওয়ার পর তাঁর নাগরিকত্ব কেড়ে নেওয়া হয়েছে?

এদিন সিএএ নিয়ে বিরোধীদের নিশানা করেন প্রধানমন্ত্রী। মোদি আজ বিহারে পরপর চারটি সভা করেন। পশ্চিম চম্পারণের সভায় প্রধানমন্ত্রী বলেন, নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন পাস হওয়ার পরই বিরোধীরা হইচই করে আসরে নেমে পড়েছিল। তারা বলেছিল মোদি সরকার এবার মানুষের নাগরিকত্ব কেড়ে নেবে। কিন্তু ওই আইন হওয়ার পর এক বছর কেটে গিয়েছে। আমি জানতে চাই কারও কি নাগরিকত্ব চলে গিয়েছে? কোন ভারতীয় কি তাঁর নিজের পরিচয়, নিজের নাগরিকত্ব হারিয়েছেন? আসলে বিরোধীরা শুধু মানুষকে বিভ্রান্ত করতে, মিথ্যা কথা বলতে অভ্যস্ত। ওদের দিয়ে দেশের উন্নয়নের কোনও কাজ হবে না।
প্রধানমন্ত্রী এদিন একই সঙ্গে কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা প্রত্যাহার ও রাম মন্দির নির্মাণের কথা বলেন। রাম মন্দির প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী বলেন, গোটা দেশের মানুষের সাহায্যে উত্তরপ্রদেশের অযোধ্যায় গড়ে উঠছে রাম মন্দির। কিন্তু কিছু রাজনৈতিক নেতা ও দল মানুষকে বুঝিয়ে ছিল, ভগবান রামের কোনও অস্তিত্বই নেই। ৩৭০ ধারা প্রত্যাহার প্রসঙ্গে বলেন, কাশ্মীর ভারতের অংশ হলেও তাদের ছিল আলাদা পতাকা, ছিল আলাদা আইন। কেন এটা হবে? কাশ্মীর থেকে কন্যাকুমারীকা গোটা ভারতে তো একটাই আইন, একই নিয়ম হওয়া দরকার। কিন্তু বিরোধীরা কাশ্মীরকে আলাদা করে রাখার চক্রান্ত করেছিল। আমরা সেই চক্রান্ত ধরে ফেলেছি। সেই চক্রান্ত ভেঙে দিয়েছি।
বিরোধী নেতারা এটা মানতে পারছে না। কোনও একজন মানুষ যদি কাশ্মীর থেকে বিহারে এসে জমি কিনতে পারে তাহলে বিহারের একজন মানুষ কেন কাশ্মীরে গিয়ে জমি কিনতে পারবে না? সাহস ও ক্ষমতা থাকলে আমার এই প্রশ্নের উত্তর দিক বিরোধীরা। কিন্তু কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা প্রত্যাহার করার পর এখন বিহারের একজন ব্যক্তিও কাশ্মীরে গিয়ে জমি কিনতে পারবেন। বাড়ি বা হোটেল তৈরি করতে পারবেন। এতে যেমন তাঁর উপকার হবে, তেমনই কাশ্মীরের পর্যটন ব্যবস্থাও চাঙ্গা হবে।

Latest tweets

Social Media


Download Android App
About Us

Kolkata Prime Time আমাদের নিউজ পোর্টাল সর্বশেষ প্রস্তাব ও ব্রেকিং নিউজ হয়.

Owner : DIBYENDU GHOSAL

স্বত্বাধিকারী : দিব্যেন্দু ঘোষাল

Contact: 9232119011

E-mail : kolkatapritime@gmail.com

Address :

Kolkata Prime Time, S.P. PALLY, REGENT PARK, KOLKATA- 700093

©️ সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

Copyright 2019 | All Right Reserved by Kolkata Prime Time Group